কুতুবপুরে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীকে দোকান ও নগদ অর্থ দিয়ে পাশে দাঁড়ালেন হাজী মীরু

 

স্টাফ রিপোর্টার আরিফ হোসেন : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুরে এক দৃষ্টি প্রতিবন্ধীকে দোকান ও নগদ অর্থ সহযোগিতা করলেন কুতুবপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক ও এক সময়ের তুখোড় ফুটবলার গরিব দুঃখী অসহায় মানুষের বন্ধু হাজী মীর হোসেন মীরু।

সোমবার (৯ নভেম্বর) বাদ জোহর পাগলা রেলস্টেশন এলাকায় একটি দোকান ও নগদ অর্থ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শহিদুল এর হাতে হস্তান্তর করা হয়।

এ সময় হাজী মীর হোসেন মীরু বলেন, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শহিদুল তার স্ত্রীকে নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থানে ট্রেনে রাস্তাঘাটে বাস স্টান সহ বিভিন্ন জায়গায় ভিক্ষাবৃত্তি করতেন। পরিবারের চারজন সন্তান নিয়ে করুণ অবস্থায় তার প্রত্যেকটি দিন কাটছে। করোনার দুর্যোগ আসার পর থেকে ভিক্ষাবৃত্তি অনেকটাই কমে গেছে তাই তার সংসার চালানো অনেক কষ্টের হয়ে পড়েছে। তাই তাদের পরিবারের দিকে তাকিয়ে আমার খুব খারাপ লাগলো আমার সাধ্যমত চেষ্টা করেছি পাশে দাঁড়াতে।শুধু শহিদুলই নয় আমি সব সময়ই চেষ্টা করি মানুষের পাশে দাঁড়াতে।আল্লাহ তায়ালা যদি আমাকে তেমন তৌফিক দেয় মৃত্যুর আগ পর্যন্ত অসহায় মানুষের পাশে থাকবো।

এসময় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শহিদুল বলেন ভিক্ষা করে আমি আমার সন্তানদের অনেক কষ্টে পড়াশোনা করাচ্ছি কিন্তু বর্তমানে সংসার ও সন্তানের পড়াশোনা চালাতে আমার হিমশিম খাওয়া লাগছে আমার দুই সন্তান সরকারি তোলারাম কলেজে পড়াশোনা করছে। করোনাভাইরাস আসার পর থেকেই ভিক্ষা অনেকটাই বন্ধ হয়ে গেছে তাই পড়াশোনা চালানোর তো দূরের কথা সংসার চালানো এটাই আমার পক্ষে দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এমন সময় একজন মহৎ মানুষ আমার পাশে দাঁড়িয়েছে আর সেই মানুষটি আর কেউ নয় সে হলো মীরু ভাই। আমাকে তিনি আয় রোজগারের জন্য একটি টং দোকান ও আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছে তার এই সহযোগিতাকে আমি কৃতজ্ঞ জানাই এবং মিরু ভাইয়ের জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া কামনা করছি যাতে করে তুমি সব সময় মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares