সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

ফ্রান্সে সরকার ওই কাফেররা মাপ না চাবে ততদিন পর্যন্ত আমাদের এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে : নাজমুল আলম সজল

 

নারায়ণগঞ্জ কথা : আহলে সুন্নত ওয়াল জামাআ’ত বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা এর উদ্যোগে ফ্রান্সের সরকার পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী হরযত মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম এর বেঙ্গল প্রদর্শনীর প্রতিবাদে গন জামায়াত ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শুক্রবার (৬ নভেম্বর) বাদ জুম্মা নারায়ণগঞ্জ ডিআইটি আলী আহমদ চুনকা পাঠাগার ও মিলন মিলনায়তন সংলগ্ন এ প্রতিবাদ গণ জামায়াত ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। শহরে মুসুল্লিদের ঢল নামে। মুসুল্লিরা প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিক্ষোভ মিছিল করে প্রতিবাদ জানায়।

এ সময় ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল বক্তব্যে বলেন,সারা বিশ্বের মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে । আপনারা জানেন ফ্রান্সের সরকার আমাদের প্রিয় রাসূল যাকে সৃষ্টি না করলে মূল কায়ানাথ কিছুই সৃষ্টি হতো না । তাকে সৃষ্টি না করলে ফ্রান্স হতোনা, বাংলাদেশ হতো না ,পৃথিবী হতো না, যাকে সৃষ্টি না করলে আজ আপনি আমি মানুষ রুপে এখানে উপস্থিত হতাম না। আমাদের সেই হৃদয়ের স্পন্দন আমাদের প্রিয় রাসুল কে অপমান করে কার্টুন বানিয়ে দেয়ালে দেয়ালে আটকে দিয়েছে এতে করে তারা সারা বিশ্বের মুসলমান কে অপমান করেছে আর আমাদের হৃদয়ের রক্তক্ষরণ হচ্ছে ।

তাই আমি বলতে চাই আমি একজন রাজনীতিক কর্মী আওয়ামীলীগ করি। আমার জীবনে আমি বিশাল বিশাল মিছিল করেছি । আওয়ামী লীগের পক্ষে, শেখ হাসিনার পক্ষে, বঙ্গবন্ধুর পক্ষে, আপনারা হয়তো বা যারা বিএনপি’র আদর্শে অনু প্রেরিত হয়ে রাজনীতি করেন। তারা শহীদ জিয়ার জন্য বেগম জিয়ার জন্য বিশাল বিশাল মিছিল করেছেন। কিন্তু আমি বলতে চাই কাল যখন হাশরের ময়দানে জিজ্ঞেস করা হবে আমার রাসূল কে অপমান করার জন্য কে কে রাজপথে আছেন। সেদিন যেন আমরা বলতে পারি যে একদিন হলেও আমার শরীরের এক বিন্দু ঘাম হলেও আমার প্রিয় রাসূলের জন্য আমি রাজপথে নেমেছি। আর সেই হাশরের কথা মনে করে আমি আমার রাসূলের জন্য এইখানে এসেছি।

তাই আপনাদের উদ্দেশ্যে বলছি যতদিন পর্যন্ত ওই ফ্রান্সের সরকার ওই কাফেররা আমার রসূলের কাছে, আল্লাহর কাছে, মুসলমান জাতির কাছে, মাপ না চাবে ততদিন পর্যন্ত আমরা এই আন্দোলন অব্যাহত রাখব। আমরা ফ্রান্সের কোন পণ্য ব্যবহার করব না। আমরা ফ্রান্সের কোন কিছু ভিজিট করবো না। যতদিন পর্যন্ত ওরা মাপ না চাবে।

এ সময় আরো বক্তারা বলেন, এই গণজোয়ার আগামীকাল বায়তুল মোকাররমের গেট যাওয়া পর্যন্ত ধরে রাখবো আর আগামীকাল সকালে প্রত্যেক মসজিদে পক্ষ থেকে গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে এ ছাড়াও মিল্লতরী মাজারের সামনে সকাল ৯ টা পর্যন্ত আপনাদের জন্য গাড়ি নিয়ে আমরা অপেক্ষা করবো ইনশাআল্লাহ আপনারা সকলে আসবেন আপনাদের কে নিয়ে আমরা ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হব।

এ সময় গণজমায়েত ও বিক্ষোভ মিছিলে নারায়ণগঞ্জের নোয়াপাড়া জামে মসজিদ, দেওভোগ বড় জামে মসজিদ, পাইকপাড়া পাড়া জামে মসজিদ সহ বিভিন্ন এলাকার মসজিদের মুসুল্লিরা ব্যানার নিয়ে যোগদান করেন।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!