Home জীবন কথা ফতুল্লার পাগলায় রাজিব হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে ৭২ ঘন্টার আল্টেমেটাম।

ফতুল্লার পাগলায় রাজিব হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে ৭২ ঘন্টার আল্টেমেটাম।

ফতুল্লার পাগলায় রাজিব হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে ৭২ ঘন্টার আল্টেমেটাম।

নারায়ণগঞ্জ কথা : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুরের সন্তান কবি নজরুল কলেজের মেধাবী ছাত্র ও কুতুবপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা (ভিপি) রাজিব তালুকদার কে প্রকাশ্য দিবালোকে নিঃস্বংস ভাবে হত্যার প্রকৃত খুনি মিঠুন গ্যাং সানজিদ, কাউসার, আলামিন, রাব্বি, ফয়সালসহ সকল সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধনেএসময় মানববন্ধনে একটি স্লোগান ছিল আমার ভাই কবরে খুনি কেন বাহিরে এমন স্লোগানে কেপেছিল পুরো এলাকা।

সোমবার (১২ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১ ঘটিকার সময় পাগলা বাজার আফসার করিম প্লাজার সামনের সড়কে এ মানববন্ধন করা হয়।

কুতুবপুর ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর হোসেন মীরু এবং এই মানব বন্ধনের সভাপতি বক্তব্যে বলেন,রাজিবের মতো একজন কর্মী পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার ও ছিল বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া একজন কর্মী নারায়নগঞ্জ ৪ আসনের মাননীয় সাংসদ জননেতা এ কে এম শামীম ওসমানের কর্মী যার ডাকে হাজারো মানুষ জড়ো হয়ে যেত। আমরা রাজিব কে আর পাবো না কিন্ত ওর হত্যাকারীদের বিচার হলে তার আত্বার শান্তি পাবে। প্রশাসন এখনো আসামীদের গ্রেফতার করতে পারছে না কেন জানিনা।

আসামীরা এখনো বুক ফুলিয়ে গুরে বেরাচ্ছে আমরা ৭২ ঘন্টার আল্টেমেটাম দিচ্ছি সকল আসামীদের গ্রেফতার করতে হবে না হলে কঠোর আন্দোলনে নামবো।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন,নিহত রাজিব তালুকদারের বাবা হাসু তালুকদার, কুতুবপুর ইউনিয়ন ১৪ পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি মোজাফফর সিং, বাইতুল আমান জামে মসজিদে সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন ৬ নং ওয়ার্ড কমিউনিটিং পুলিশের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার, কুতুবপুর ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি রশিদ মোল্লা, যুবলীগ নেতা মেহদী হাসান, যুবলীগ নেতা ইমরান হোসেন ইদ্রান, আরিফ হোসেন, সুজন, মাহবুব প্রমুখ।এসময় মানববন্ধনে বিভিন্ন পেশার মানুষ এলাকার স্কুল কলেজের সকল শিক্ষার্থী রাজিব এর পরিবারের সদস্য সহ হাজার মানুষ এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

এ সময় নিহত রাজিব এর বাবা হাসু তালুকদার বক্তব্যে বলেন, আমার ছেলে হত্যার পর ৬ মাস চলে যাচ্ছে এখনো কোন বিচারের আভাস পাচ্ছি না। কোন হত্যাকারীকে গ্রেফতার করা হয় নাই। হঠাৎ শুনতে পাই মামলা ডিবিতে পাঠানো হইছে। মামলার আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ায়। আমরা অবিলম্বে খুনীদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।মানববন্ধনে বক্তারা ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে দোষীদের গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানায়। এমনকি দ্রুত ভিপি রাজিব হত্যাকারিদের গ্রেফতার করে ফাঁসিরও দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের হুসিয়ারি দেন তারা। নিহত ভিপি রাজিব কবি নজরুল কলেজের মেধাবী ছাত্র ছিলেন।প্রসঙ্গতঃ ফতুল্লার পাগলায় গত ৭ মাস পূর্বে মিঠুন বাহিনীর হামলায় আহত রাজিব ওরফে ভিপি রাজিব (২৪), ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীনবস্থায় মারা যায়।

এর আগে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পাগলা জেলে পাড়া এলাকায় ভিপি রাজিবকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিত ভাবে কুপিয়ে মারাত্যক জখম করে মিঠুন ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। পরে তাকে উদ্বার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীনাবস্থায় রাত ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় ভিপি রাজিব।

ভিপি রাজিব হত্যার পর রাজিবের বাবা হাসু মিয়া তালুকদার বাদী হয়ে পাগলা জেলেপাড়ার মিঠুন (৩৭), রাব্বি (২৪), ইয়াসিন (২০), কাউছার (২৭), মিলন (৪০), আলামিন অরুফে কেবলা আলামিন (২৭), সানজিদ (৩৭), চাঁদ শিকদার সেলিম (৩৫), ফয়সাল (২২), সোলেমান অরুফে কুট্টি (৩৭), আ: জলিল (৫০), মানিক অরুফে কুত্তা মানিক (৪০)সহ অজ্ঞাত আরো ১৫/২০জনকে আসামী করে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা (মামলা নং ৬) দায়ের করেন।এ ঘটনায় ১২ জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাতনামা ১৫/২০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের হলেও এই পর্যন্ত মামলার এজাহারভুক্ত দুই আসামি চাঁদ শিকদার সেলিম, তার সহযোগী সোলাইমান কুট্রি গ্রেপ্তার হলেও ধরা পড়েনি মূল খুনি মিঠুন, রাব্বি, ইয়াসিন, কাউছার, মিলন, আলামিন অরুফে কেবলা আলামিন, সানজিদ, ফয়সাল, আ: জলিল, কুত্তা মানিক। ঘটনার গত সাত মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারে না করায় তারা এ মানববন্ধন করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Shares
error: Alert: Content is protected !!