বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০

ধর্ষকদের দ্রত বিচার আইনে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইশা ছাত্র আন্দোলন

 

নারায়নগঞ্জ কথা : নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব চত্ত¡রে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর এর উদ্যোগে ‘‘দেশব্যাপী অব্যাহত ধর্ষণ ও নারী সংহিসতার প্রতিবাদ এবং ধর্ষকদের দ্রুত বিচার আইনে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) বাদ আসর এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করেন।

এ সময় নগর সভাপতি এম. শফিকুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মেহেদী হাসান এর সঞ্চালনায় উক্ত বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ইসলামী যুব আন্দোলন, কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-সম্পাদক মুফতি মুস্তাকিম বিল্লাহ ও প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সংগ্রামী ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জননেতা মুহাম্মাদ নূর হোসাইন। প্রধান অতিথি বলেন- বর্তমান স্বাধীন এই বাংলাদেশে ইভটিজিং, ধর্ষণ, শ্লীলতাহানী, গুম, খুন এগুলো নিত্য দিনের ঘটনা।

এগুলো এখন মহামারী আকার ধারণ করেছে। সরকারি বাহিনীর বলয়ে তৈরী মদদপুষ্ট একদল দুশ্চরিত্রবান, কুলাঙ্গাররা এদেশের মা ও মাটিকে করেছে কলংকিত। ক্ষমতাসীনদের ছত্রছায়ায় দীর্ঘদিনের বিচার হীনতার সংস্কৃতির পাশাপাশি ভঙ্গুর বিচার বিভাগ ও দুর্নীতিগ্রস্থ প্রশাসনের দায়িত্বহীনতার কারণে দেশব্যাপী যেন আজ ধর্ষণের মহা উৎসব চলছে। এতে করে এটাই প্রমাণিত হয়- এই ঘুনে ধরা সমাজ ব্যবস্থা নারীর ইজ্জত ও সবার জান মালের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে।

তাই এর থেকে মুক্তির জন্য খেলাফত আলা মিনহাজিহীন নবুওয়্যাহ প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই। আর তবেই সবার জান মাল ও ইজ্জত আবরু’র নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব হবে। প্রধান বক্তা তার বক্তব্যে বলেন-বর্তমান সরকার আজ নারী নিরাপত্তা দানে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। হযরত শাহ জালালের পুন্য ভূমি সিলেটের এমসি কলেজ চত্ত¡রে নরপশু ছাত্রলীগের ধর্ষকরা দলবদ্ধ হয়ে স্বামীকে আটকে রেখে এক বোনের ইজ্জত লুণ্ঠন করেছে। এ বর্বরচিত ও নারকীয় তান্ডব আজ গোটা বাংলাদেশে এমন দৃশ্য রুটিন ওয়ার্কে পরিনত হয়েছে। আজ সর্বত্র ধর্ষক, লুটেরা ও হায়েনাদের অবাধ বিচরণ চলছে। ফ্যাসিবাদকে প্রলম্বিত করতেই রাষ্ট্রযন্ত্র ঢাল স্বরূপ এমন গুন্ডাতন্ত্র উৎপাদন করছে। এর দায়ভার সম্পূর্ণভাবে এই ফ্যাসিবাদী সরকারের অনতিবিলম্বে ধর্ষকদের দ্রæত বিচার আইনে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

সভাপতি বলেন- নারীর ক্ষমতায়নের মুখরোচক বুলির আড়ালে চলছে নারীর প্রতি সহিংসতা। ক্ষমতাসীনদের অংগ সংগঠন ছাত্রলীগ দেশ ও শিক্ষাঙ্গনের জন্য একটি বিষফোঁড়া। ক্ষমতার অপব্যবহার করে ছাত্রলীগ প্রতিটি ক্যাম্পাসে খুন, গুম, ধর্ষন ও ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। সময় এসেছে এখনই ওদের লাগাম টেনে ধরতে হবে। এভাবে একটি সমাজ চলতে পারে না। ঐতিহ্যবাহী সিলেট এম সি কলেজকে যারা কলংকিত করেছে সে সব ধর্ষক ছাত্রলীগ নেতাদের অনতিবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে ও কলেজ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করতে হবে। এ সময় তিনি সর্বস্তরের ছাত্র সমাজকে জেগে উঠার আহবান জানান।

উক্ত বিক্ষোভ মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন-বিগত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত মেয়র প্রার্থী জননেতা মুফতি মাসুম বিল্লাহ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ ওমর ফারুক, ইসলামী যুব আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি যুবনেতা গিয়াসুদ্দীন মুহাম্মাদ খালিদ, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মাওলানা আবদুল্লাহ আল ফারুক, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি শেখ মুহাম্মাদ হাসান আলী, ইশা ছাত্র আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সহ-সভাপতি আহমাদ কবির, সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ.এম. মিরাজুল ইসলাম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ ওমর ফারুক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ ইকবাল হুসাইন, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মাদ শরীফ হোসাইন, দফতর সম্পাদক এইচ.এম শাহীন আদনান, কওমি মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ আবুল হাসান, আলিয়া মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ আবদুর রাজ্জাক, স্কুল সম্পাদক এম.এম জাহিদুল ইসলাম, ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মিজানুর রহমান, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ তারেক হাসান, সদস্য মুহাম্মাদ ইফতি আলম সহ বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের দায়িত্বশীলবৃন্দ।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!