বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০

পাগলার গ্রীন ডেলটা ক্লিনিকের ভুল চিকিৎসায় ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু

 

স্টাফ রিপোর্টার  ( আরিফ হোসেন ) : নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানার পাগলার নয়ামাটি এলাকায় আয়েশা আক্তার আলফি(১৪) নামে এক শিক্ষার্থী বৃহস্পতিবার (২০শে আগষ্ট)বাড়ির ছাদে সমবয়সীদের সাথে খেলার সময় হঠাৎ পা পিছলে পড়ে যায়।যার ফলে ব্যাথা অনুভব করলে স্থানীয় পাগলা বাজার কামালপুরে অবস্থিত গ্রীন ডেলটা ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। হসপিটাল কতৃপক্ষ জানায়, পায়ের হাড় ভেংগে গেছে এবং অপারেশন করাতে হবে।

আলফির অভিভাবক এখানে অপারেশন করাতে অনিচ্ছা প্রকাশ করলেও, তারা আস্থা দেয় তারা এটা সম্পন্ন করতে পারবে।ততক্ষন পর্যন্ত আলফি স্বাভাবিক ছিলো। পরবর্তীতে অপারেশনের জন্য তাকে অজ্ঞান করার জন্য Anthesia ইনজেকশন পুশ করা হয় ভুল জায়গায়, যার ফলে কার্যকারিতা না পাওয়ায় তারা আবারো ইনজেকশন পুশ করে এবং ওভার ডোজের কারনে একপর্যায়ে কোমায় চলে যেতে থাকে আলভী। মূহুর্তের মধ্যেই নিস্তেজ হয়ে যায় আলভীর পুরো শরীর।অবস্থা বেগতিক দেখে গ্রীন ডেলটা কতৃপক্ষ জানায় আলফির আই.সি.ইউ সাপোর্ট লাগবে।

যা তাদের এখানে না থাকায়, তারা তাদের অন্য শাখা ধোলাইপাড় ডেলটা হসপিটালে,যাত্রাবাড়ী শাখায় নিয়ে যায় এবং দীর্ঘ ৩ দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর ২৩শে আগষ্ট সকালে আই.সি.ইউ রুমে আলফির বড় ভাই হাসিবুল হাসান শান্ত (২২) প্রবেশ করে দেখতে পায় যে ইতিমধ্যে আলফির সমস্ত শরীর ঠান্ডা হয়ে গেছে এবং পালস বন্ধ হয়ে যাওয়াতে নিশ্চিত হন তার বোন আর নেই।ডাক্তারদের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না জানানোয় আলফির পরিবার অপেক্ষায় থাকে এবং একপর্যায়ে তাদের পক্ষ থেকে মৃত্যুর খবর আসে।

এভাবেই ভুল চিকিৎসায় হারিয়ে যায়, এক দুরন্ত কিশোরী।নাম ধারী ক্লিনিক খুলে ভুল চিকিৎসা প্রয়োগ করে রোগীর মৃত্যু দেশের ইতিহাসে এটাই প্রথম নয়। তাছাড়া পাগলা বাজারে গ্রীন ডেলটা ক্লিনিকের নামে এর পূর্বেও অনেকের অভিযোগ রয়েছে, টেষ্ট রিপোর্ট ভুল দেয়া তাদের নিত্যদিনের ভুল।

আলফির ভাই শান্ত জানায়, অজ্ঞান করার ইনজেকশন দেয়ার পূর্বেও আমার বোন স্বাভাবিক ছিলো, কথা বলছিলো। চোখের সামনে এভাবে হারিয়ে ফেললাম আমার বোনকে। আমি এর সঠিক বিচার চাই ।

গ্রীন ডেলটা হাসপাতাল বন্ধের দাবিতে ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ করে এবং রাস্তা বন্ধ করে রাখে পরবর্তীতে নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা মডেল ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম সাহেব এসে তাদেরকে অনুরোধ করেন রাস্তা ছেড়ে দিতে এবং সঠিক বিচার করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে এই আশ্বাস দেন।বিক্ষোভ কারীরা রাস্তা ছেড়ে দেয়।পরবর্তীতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন উপস্থিত হন এবং গ্রিন ডেল্টা হসপিটাল তীর সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকিবে এমন নির্দেশ দেন এবং এই হাসপাতালে সকল কাগজপত্র সঠিক  না থাকে তাহলে খুব শীঘ্রই এই হাসপাতালটা কে সিলগালা করা হবে আর এখনো হাসপাতালটি সিলগালা অবস্থায় থাকবে যতক্ষণ না খোলার কোনো নির্দেশ আমরা না দেই।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!