Home আইন-আদালত এলাকার মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসেন তা অকল্পনীয় : কাউন্সিলর দিনা

এলাকার মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসেন তা অকল্পনীয় : কাউন্সিলর দিনা

0
এলাকার মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসেন তা অকল্পনীয় : কাউন্সিলর দিনা
এলাকার মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসেন তা অকল্পনীয় : কাউন্সিলর দিনা

স্টাফ রিপোর্ট :  নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নারী কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনার বিরুদ্দে মিথ্যে মামলা  থেকে  জামিন পাওয়ায় এলাকার শত শত মানুষ তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরন করে নিয়েছেন ।এ সময় উপস্থিত অনেককে আবেগাপ্লুত হয়ে চোখের জল ফেলতে দেখা গেছে।

বুধবার (৮জুলাই) বিকেলে, নারী কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনা এলাকায় গেলে শত শত মানুষ  কাউন্সিলর দিনাকে ফুলের মালা দিয়ে বরন করে নেন।

জানা গেছে, মহামারী করোনার দুঃসময়ে শুরু থেকেই মাঠে থেকে সাধারন মানুষের পাশে ছিলেন এই দুঃসাহসী নারী কাউন্সিলর। নেই রাত নেই দিন তিনি সাধারন মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন। করোনা প্রতিরোধে করেছেন সচেতন মূলক লিফলেট বিতরন এবং জীবানু নাশক ঔষধ ছিটিয়েছেন। অসহায় গর্ভবতী নারীদের ডেলিভারি খরচ বহন সহ সমস্ত দায়িত্ব নিয়ে ‘মানবতার মা’ উপাধি পেয়েছেন এই নারী কাউন্সিলর। আর এই ভালো কাজগুলো করতে গিয়ে একটি চক্র ঈর্ষান্বিত হয়ে তার কার্যালয়ে হামলা, ভাঙ্গচুর ও মিথ্যে মামলা দায়ের করে। সেই মিথ্যে মামলা থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে এলাকায় গেলে বুধবার এভাবেই শত শত নারী পুরুষ কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনাকে ফুল দিয়ে বরন করে নেন। অনেকেই আবার তাকে ফিরে পেয়ে আনন্দে চোখের পানিটুকুও ধরে রাখতে পারেননি।

একদিকে আনন্দাশ্রু আরেক দিকে ফুলের মালা নিয়ে প্রিয় জনপ্রতিনিধিকে বরন করতে দেখা গেছে।

সময় কাউন্সিলর দিনা নারায়ণগঞ্জে দায়িত্বরত সকল সাংবাদিকদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সময় তিনি জনগনের উদ্যেশ্যে বলেন, ‌‌আমি আসলে আজকে এলাকাবাসীর এই ফুলেল শুভেচ্ছায় হতভম্ব হয়ে গেছি। এলাকার মানুষ যে আমাকে এতটা ভালবাসেন তা অকল্পনীয়। মামলার পরে পরিবার পরিজন সহ ফেরারী জীবন যাপন করার সময় এলাকার অনেক মা-বোন আমার জন্য নফল রোজা, নফল নামাজ পরে আল্লাহ পাক এর দরবারে দোয়া করেছে। এর চেয়ে বড় পাওয়া আমার জীবনে আর কি হতে পারে।

তিনি আরো বলেন,আমি আজকে থেকেই আবার নতুন করে আমার যত প্রকার সেবামূলক কাজ আছে সেইসব শুরু করব।

সময় তিনি সাংবাদিকদের ‌এক প্রশ্নের জবাবে বলেন,আমি আসলে কোনো মামলায় যাব না। কেননা এখন হামলা-মামলার সময় না,রাজনীতির সময় না। এখন শুধুই মানবতার সময়। আমাদের দেশটা আগে করোনামুক্ত হোক, এরপর রাজনীতি করার অনেক সময় পাওয়া যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here