বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৬, ২০২০

বেকার যুবকদের বেকার ভাতা সহ উপযুক্ত কর্মসংস্থান নিশ্চিত করার দাবীতে যুব বন্ধন করেন

 

নারায়ণগঞ্জ কথা : করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণে সরকারের পরিকল্পনা যথাযথ বাস্তবায়ন করতে না পারায় এদেশের জনসংখ্যার প্রায় ৮৫% মানুষ তাদের জীবন যাত্রার নিশ্চয়তা পাচ্ছে না, টানা ছুটিতে অনেকেই এরই মধ্যে চাকুরী হারিয়েছে, আবার চাকুরী থাকা সত্যেও শতভাগ বেতন-ভাতা না পাওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। এ পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকার সম্পূর্ণ ভাবে ব্যর্থ হয়েছে। তাই জরুরী ভিত্তিতে বেকার যুবকদের বেকার ভাতা সহ উপযুক্ত কর্মসংস্থান নিশ্চিত করার দাবীতে ইসলামী যুব আন্দোলন উদ্দ্যেগে যুব বন্ধনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ইসলামী যুব আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ শহর শাখার সহ-সভাপতি মুহা. আবুল বাশার খান এর সভাপতিত্বে ও প্রকাশনা সম্পাদক হোসাইন মুহাম্মাদ আল আমিন এর সঞ্চালনায়।

বৃহস্পতিবার (০২ জুলাই) সকাল ২টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে  এ যুব বন্ধনের অনুষ্ঠিত  হয় । যুব বন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী যুব আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সংগ্রামী সভাপতি গিয়াসুদ্দীন মুহাম্মাদ খালিদ।

ইসলামী যুব আন্দোলন,নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সংগ্রামী সভাপতি গিয়াসুদ্দীন মুহাম্মাদ খালিদ বলেন, দেশের এক-তৃতীয়াংশ যুবক। এই যুবকরাই দেশের সম্পদ। যুবকদের

স্বাবলম্বী করার জন্য সরকার কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না। তারা সরকারের বাজেট নিয়েও সমালোচনা করেন। করোনাকালীন বাজেটে বেকার যুবকদের জন্য কোন বরাদ্দ রাখা হয়নি। হয়নি করোনা মহামার নিয়ন্ত্রণের জন্য অতিরিক্ত কোন বরাদ্দ। যেখানে উচিত ছিল দেশের স্বাস্থ্য বিভাগে বরাদ্দের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়া।

তিনি আরও বলেন,দেশের স্বাস্থ্যখাতে বর্তমানে দুর্নিতীর করাল গ্রাসে আক্রান্ত। স্বাস্থ্য খাতের সকল বরাদ্দ একদল চাটুকাররা ভাগ বাটোয়ারা করে চুরির মহোৎসবে মেতে উঠেছে। বিভিন্ন চিকিৎসাকেন্দ্র ও হাসপাতালগুলোর দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় মানুষ সেবার পরিবর্তে পাচ্ছে অবহেলা,অসৌজন্যমূলক আচরণ আর হয়রানি। করোনা ছাড়াও সাধারণ রোগীদেরকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে না। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর গাফেলতির কারণে এমনটি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। তিনি অবিলম্বে এই অযোগ্য- মানবতার শত্রæ স্বাস্থ্য মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবী করেন।

যুব বন্ধনে বক্তারা বলেন-যদি এদেশের বেকার যুবকদের বেকার ভাতা, সাধারণ মানুষের মাঝে আপাদকালীন ভাতা প্রদান করা না হয় তাহলে দেশে এক অথনৈতিক মহামারী শুরু হবে। যে মহামারী বর্তমান সরকারের পক্ষে সামাল দেওয়া সম্ভব হবে না। দেশের মানুষকে করোনা মহামারী থেকে বাঁচাতে হলে অতি দ্রæত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

যুব বন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন- করোনা মহামারীতে সরকার যে সকল পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে দুর্নিতীগ্রস্থ কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের কারণে সরকার তা বাস্তবায়ন করতে সম্পূর্ণ রূপে ব্যর্থ হয়েছে। এরই ফলশ্রæতিতে সরকারী চাকুরীজীবি ছাড়া শতকরা ৮৫% মানুষ তাদের জীবন যাত্রার নিশ্চয়তা পাচ্ছে না। টানা লকডাউন ও ছুটিতে অনেক বেসরকারি চাকুরীজীবিরা তাদের চাকুরী হারিয়েছে। আবার যারা চাকুরীতে বহাল রয়েছেন তাদেরকেও বেতন-ভাতা দেওয়া হচ্ছে ৬০ শতাংশ। এহেন পরিস্থিতিতে

সরকারকে দেশের গরীব অসহায় ও বেকার যুবকদের মাঝে বেকার ভাতা ও আপদকালীন ভাতা প্রদানের দাবী জানান।

যুব বন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন,ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, নারায়ণগঞ্জ শহর শাখার সংগ্রামী সভাপতি আলহাজ, আবদুল হাই, সহ-সভাপতি আলহাজ, আবদুস সোবহান, সেক্রেটারী আলহাজ, আবদুর রহমান রোমান, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুহা. মোস্তফা সরকার, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ শহর শাখার সেক্রেটারী মুহা. মোস্তফা তালুকদার, ইশা ছাত্র আন্দোলন, নারায়ণগঞ্জ শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ ইকবাল হুসাইন সহ ইসলামী যুব আন্দোলন,

নারয়ণগঞ্জ শহর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মুয়াম্মার হাসান অপু, দফতর সম্পাদক হোসাইন আহম্মেদ, প্রচার সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ রাসেল, অর্থ সম্পাদক মুহা. ইউসুফ খান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো: জাকির হোসেন রনি, মানবাধিকার সম্পাদক মুহা. আরিফুর রহমান এবং শহর শাখার আওতাধীন ৮টি ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!