Home জীবন কথা ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া

ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া

0
ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া
ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া

নারায়ণগঞ্জ কথা :  নারায়ণগঞ্জ চাষাঢ়ায় ২০০১ সালের ১৬ জুন আওয়ামী লীগ অফিসে ভয়াবহ বোমা হামলায় নিহত ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে শহীদ বাপ্পি স্মৃতি সংসদ ও বাপ্পীর পরিবারের পক্ষ থেকে মিলাদ দোয়া ও নেওয়াজ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) সকাল ১১টায় নগরীর ১৮নং ওয়ার্ডের শহীদ বাপ্পি স্মৃতি সংসদ কার্যালয়ে এ মিলাদ দোয়া ও নেওয়াজ বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক কাউন্সিলর  ও মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান মুন্না বলেন,আপনারা সকলে অবগত আছেন  ১৬ ই জুন ২০০১ সালে শহরের চাষাঢ়া আওয়ামিলীগ অফিসে ভয়াবহ বোমা হামলায় সেখানে বিশ জন সহ আমার শ্রদ্ধেয় বড় ভাই নিহত ছাত্রলীগ নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পী শহিদ হন ।  তার পরবর্তীতে উনি যেমন জীবিত থাকা অবস্থায় ছাত্র রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সামাজিকতায় এবং মানুষের পাশে দীর্ঘদিন দীর্ঘসময় তার সাধ্যমত সেবা করে গেছেন।  তার মধ্যে হলো ৮৮ এবং ৯৮ বন্যা উল্লেখযোগ্য । তার মৃত্যুর পর  থেকে আমাদের এলাকায় শহীদ বাপ্পি স্মৃতি সংসদ প্রতিষ্ঠিত হয়। তার স্মৃতি ধরে রাখার জন্য এই বাপ্পি স্মৃতি সংসদ এবং আমাদের পরিবার পক্ষে থেকে আমরা প্রতিবছরই  প্রারায় ৭ দিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মচারী গ্রহণ করে থাকি।  যেখানে বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক এবং ক্রীড়া সংগঠন গুলো এগিয়ে আসে এবং তারা নিজ উদ্যোগে করে থাকে।  কিন্তু দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে বা চলমান অবস্থার  কারণে পরিস্থিতি দুর্যোগ আমরা এই অনুষ্ঠানের কর্মসূচি অত্যন্ত ছোট করে নিয়ে এসেছি ।

আমরা দুই দিনের মধ্যে আয়োজন টা শেষ করব।  আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে । যেখানে রয়েছে আমরা সকালে তার কবরে পুষ্প অর্পণ করেছি । তার কবরের দোয়া করেছি এবং  ১৬ ই জুন ২০০১শালে নিহত অন্যান্য শহীদের জন্য দোয়া করেছি।  ও অন্যান্য সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁর কবরে ফুল অর্পণ করা হয়েছে।  পাশাপাশিআমাদের কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করে দুজনের রাখা হয়েছে । তাই আমরা এবছর রক্তদানের কর্মসূচী বন্ধ রেখেছি। সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই আমাদের এই কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।  যাতে কারো কোনো বিপদের সম্মুখীন হতে না হয় আমাদের সরকার ঘোষিত বা আমাদের প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য বিধি যাতে লংঘন করতে না হয়  এজন্য আমাদের কর্মসূচী ছোট করে দুইদিনের রেখেছি ।  তারমধ্যে আজকে  গরিব অসহায় দুস্থদের মাঝে বিভিন্ন এলাকায় রান্না করা খাবার বিতরণ করা হচ্ছে । রাতে বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে ও শহীদ বাপ্পী স্মৃতি সংসদ এর পক্ষ থেকে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল হবে । আগামীকাল কয়েকটি স্থানে বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে মিলাদ মাহফিল এর মাধ্যমে আমাদের দুই দিনের কর্মসূচি সমাপ্তি করব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক  কামরুল হাসান মুন্না,মহানগর যুবলীগ নেতা মোঃ তাইফুল হাসান তান্না,মহানগর শ্রমিক লীগের জয়েন্ট সেক্রেটারি রকিবুল হাসান রিয়ন, রাজিবুল হাসান রানা,মাসুদ পারভেজ ইমন,নাহিয়ান আহাম্মেদ নিঝুম সহ স্থানীয় গণ্যমান্যব্যক্তিবর্গ ও তার পরিবারের সকল সদস্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here