মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৪, ২০২০

শহর ছাড়ার চিন্তাও কইরেন না তাহলে ঈদ রাস্তায় করতে হবেঃশফিকুল ইসলাম

 

স্টাফ রিপোর্টার : ঈদকে সামনে রেখে লকডাউন ভেঙে কেউ পায়ে হেঁটেও গ্রামের বাড়ি যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে ঈদ পর্যন্ত রাস্তাতেই রাখা হবে তাই সকলের প্রতি আমার অনুরোধ শহর ছাড়ার চিন্তা মাথা থেকে বাদ দিয়া দেন এবং কোথাও যেতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপেলিটন পুলিশের কমিশনার শফিকুল ইসলাম।

বুধবার ( ২০ মে) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইর এলাকায় কেন্দ্রীয় ইদগাহ ময়দানে জেলা পুলিশ আয়োজিত দুস্থদের ঈদ সামগ্রী বিতরণে এসে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। ডিএমপি কমিশনার দেশব্যাপী করোনার ভয়াবহতার কথা উল্লেখ করে এবারের ঈদের আনন্দ থেকে বিরত থাকতে সবার প্রতি আহবান জানান। নিজ নিজ জেলায় অবস্থানসহ ঝুঁকি নিয়ে জেলার বাইরে বহির্গমনের চেষ্টা না করতেও অনুরোধ করেন তিনি।

আর এর প্রধান কারন হলো এখন পর্যন্ত সারাদেশে যত যায়গায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছে তার বেশির ভাগই ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে যাওয়া লোকজনের মাধ্যমেই ছরিয়েছে। ডিএমপি কমিশনার জানান, ঢাকা এবং আশপাশের জেলাগুলো থেকে কাউকে অন্য জেলায় যেতে দেয়া হবে না। পাশাপাশি বাইরের কোনো জেলা থেকেও কাউকে ঢাকায় প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। এরই মধ্যে সব ধরণের গণপরিবহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ জেনেশুনে কাউকে মৃত্যুর মুখে পড়তে দেবে না। করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে দেশ ও জাতির স্বার্থে সরকারের নিষেধাজ্ঞাকে উপেক্ষা করে ঈদের অজুহাতে কেউ রাস্তায় বের হলে তাকে আটকে দেয়া হবে এবং ঈদ পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করতে হবে। কারো কোনো অজুহাতকে পুলিশ প্রশ্রয় দেবে না। বারের ঈদ উপলক্ষে পুলিশ দেশের সড়ক মহাসড়কগুলোতে কঠোর ভূমিকা পালন করবে এবং কাউকে ছাড় দিবে না বলেও জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম।

নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলমের সভাপতিত্বে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচিতে অতিথি হিসেব আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানসহ পুলিশ বিভাগের অন্য কর্মকর্তারা। জেলা পুলিশের উদ্যোগে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এক হাজার দুস্থ পরিবারের হাতে এই ঈদ সামগ্রী তুলে দেন অতিথিরা।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!