শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০

তার সম্মান হানি করার জন্য আজ অনেকেই উঠে পড়ে লেগেছেন :এলাকাবাসি

 

নারায়ণগঞ্জ কথা : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশেনের ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মানবতার ফেরিওয়ালা আব্দুল করিম বাবুর সম্মান হানি করার চেষ্টায় ব্যর্থ হয় একটি কুচক্রি মহল। নারায়ণগঞ্জের নামে বেনামে অনলাইনের অন্যতম একটি অদৃশ্য অনলাইন পোর্টাল ও সাংবাদিক পরিচয় দাতা মিথ্যে বানোয়াট একটি নিউজ করেন । যে নাকি ইতি মধ্যে তার কর্মকান্ডে ভুল স্বিকার করে ক্ষমাও চেয়েছেন ভুক্তভোগীর কাছে এমনটাই জানালেন কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু ।

বুধবার (৬ মে) সন্ধ্যায় তাকে নিয়ে অপপ্রচার হচ্ছে এমন দাবী করে সিটি করপোরেশেনের ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মানবতার ফেরিওয়ালা আব্দুল করিম বাবু।

এলাকাবাসি বলেন, ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু যার কথা না বললেই নয়। তিনি এমন একজন মানুষ যার তুলনা হয় না। তিনি নারায়ণগঞ্জে অন্যতম একজন জন প্রতিনিধি। তিনি আমাদের এই ১৭নং ওয়ার্ড বাসীর জন্য যা করেছে তা অন্য কোন ওয়ার্ড কাউন্সিলর তার এলাকার জনগণের জন্য করতে পারেনি। তিনি কাউন্সিলর যখন ছিলেন না তখন এই ১৭ নং ওয়ার্ডে অনেক দুর্ভোগ ছিল আমরা উপভোগ করেছি।

কিন্তু‍ তিনি কাউন্সিলর হওয়ার আগ থেকেই এলাকাবাসীর এই কষ্ট গুলো দেখতে পান এবং তিনি নানা সময় নানা উদ্যোগে আমাদের এই এলাকায় সহযোগিতা করেন। তিনি আমাদের এলাকায় পানির ব্যবস্থা করে দেন। তিনি এলাকায় যেকোনো সমস্যা হলে রাত আর দিন নেই তার কাছে তিনি এগিয়ে আসেন। এবং নিজে উপস্তিত থেকে তা সমাধান করেন। তিনি কাউন্সিলর হওয়ার পর এলাকায় বিভিন্ন কর্মকাজে  জড়িত থাকেন।  সারাক্ষণ শুধু এলাকার গরিব দুঃখী জনগণদের নিয়ে চিন্তা করেন।  তিনি আমাদের এলাকায় পুকুরে মাছ ছেড়ে সে মাছ পরে গরীবদের মাঝে বিতরন করেন।  তিনি খাবারের পানির ব্যবস্থা করেন।

তিনি আমাদের এলাকায় রাস্তার ড্রেন ভাঙ্গা অবস্থায় ছিল সেগুলো ঠিক করার ব্যবস্থা করেন। তিনি নিজ অর্থায়নে ১৭ নং ওয়ার্ড বাসীর জন্য অনেক কিছু করেন। যা মুখে বললে শেষ হবে না । তিনি সর্ব সময় ঈদ উপলক্ষে রোজার মাসে মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।  তিনি আমাদের এলাকার ছোট বড় মানুষদের নানা কাজে অবগত থাকেন।  তিনি এলাকায় মাদক এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেন। তার কথা আর কি বলব।  তার সম্মান হানি করার জন্য আজ অনেকেই উঠে পড়ে লেগেছেন। তার মত একজন জনপ্রতিনিধি পেয়ে আমরা গর্বিত।  আল্লাহ যেন তাকে দীর্ঘ আয়ু দান করেন। যেন তিনি সারা জীবন মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে।

আপনারা দেখান তার মত একটা জনপ্রতিনিধি যিনি কিনা এই করোনা ভাইরাস দুর্যোগকালীন সময়ে নিজ উদ্যোগে ১২ হাজার পরিবারকে খাবার দিয়েছে। একটাও দেখাতে পারবেন সবাই সরকারের কাছ থেকে যে ত্রান পেয়েছে তাই শুধু দিয়েছে। তাকে আমরা মানবতার ফেরিওয়ালা শুধু এই ত্রাণের জন্য বলি না।  সে এই ভাইরাস আসার আগে থেকে বির্গত ১০ বছর যাবত আমাদের ১৭ নং ওয়ার্ডে তিনি নিঃস্বার্থে কাজ করে যাচ্ছে।  আর যারা তার বিরুদ্ধে এ সকল কাজ করছে তাদের বিচার একদিন  আল্লাহতালা করবেন।

উলেক্ষিত যে, ১৭ নং ওয়ার্ডে তাকে মানবতার ফেরিওয়ালা ও  মহত মনের মানুষ  বলে আবারও এলাকাবাসি উপাদি দেন।  

এঘটনায় কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন- প্রিয় নারায়নগঞ্জ বাসী, গতকাল নারায়নগঞ্জ এর কিছু অতি উৎসাহিত অনলাইন আমার বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা নিউজ প্রকাশ করে তারা যে হলুদ সাংবাদিক প্রমান করেছে.. আপনারা নিশ্চই অবগত আছেন আমি ১০ বছর ধরে আমার ১৭নং ওয়ার্ড এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন করে আসছি, করোনার এই মহা বিপদে ১৫, ১৬,১৭,১৮ দেখি নাই সাধ্য মতো করার চেষ্টা করেছি ১৭নং ওয়ার্ড এ অধিক করেছি কারন এই এলাকার মানুষ আমাকে অনেক সম্মান দিয়েছে।

এলাকার কিছু ধান্দাবাদ সুদখোর দালাল রা একটি চক্র হয়ে আমার বিরুদ্ধে ভারা করা লোক দিয়ে টাকা ব্যবহার করে সম্মান হানির চেষ্টা করছে, আফসোস এই অর্থ টা তোমরা গরিবের পিছনে ব্যবহার করতা, বিগত ১০ বছরে আমি নিজের কষ্টের উপার্জিত কোটি কোটি টাকা আমার এলাকা বাসীর কল্যানে ব্যবহার করেছি। তোরা দালাল রা পারবি করতে , পারবি না তোদের কলিজা নাই তোরা পারবি গরিবের রক্ত চুষে খেতে ,আমি বাবু থাকতে পারবিনা জীবনেও আমার গরিবের উপর অত্যাচার করতে , তোদের মতো মানুষ রুপী দালালদের কথায় আমি পিছে সরে যাবো কিভাবে ভাবলি আর এই ছোট খাটো অনলাইন এ প্রচার করেই দমিয়ে ফেলবি। যারা কষ্ট করে খেয়ে না খেয়ে সাংবাদিকতা করছে তাদের বদনাম করে দেয় এই সকল অনলাইন এর সাংবাদিকেরা। মানুষের উপকার না করতে পারলে ক্ষতি কইরেন না। একটা কথা মনে রাখবেন যারা আমার সম্মান হানীতে লিপ্ত তাদের জন্য আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম In shah Allah আল্লাহ আমার মৃত্যুর আগেই তাদের বিচার করবেন ।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!