বুধবার, ডিসেম্বর ২, ২০২০

সা,দাতীয়া জামে মসজিদ কমিটির উদ্যোগে- ৭০ টি অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

 

স্টাফ রিপোর্টার : মসজিদ আল্লাহর ঘর। আল্লাহর ইবাদতের জন্যই নেককার বান্দারা প্রতিনিয়ত নামাজ পড়েন এবং গুনাহগার বান্দা পরিশুদ্ধ হওয়ার জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা চায়।আজ রাতে তারাবির নামাজের মধ্য দিয়ে পবিত্র মাহে রমজানের সিয়াম সাধনার মাস শুরু হবে।

সকল ধর্মপ্রাণ মুসলিম ভাই-বোনেরা আল্লাহর ইবাদত বন্দেগী বেশি বেশি করবেন এবং রোজা রাখবেন।কিন্তু ঠিক এই সময় সারা বিশ্বের ন্যায় আমাদের বাংলাদেশেও করোনা মহামারী দুর্যোগের ভয়াল গ্রাসে বিপর্যস্ত। প্রতিনিয়ত আক্রান্ত এবং মৃত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে নারায়ণগঞ্জ জেলার অবস্থা খুবই ভয়াবহ।

এছাড়া দীর্ঘ লকডাউন এর কারণে সর্ব শ্রেণি-পেশার মানুষ বিপর্যস্ত এবং অসহায় হয়ে পড়েছে। ঘরবন্দী, কর্মহীন মানুষজন খাবারের অভাব বোধ করছে।এমন সময় নারায়ণগঞ্জ জেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের দক্ষিণ আদর্শনগর ওয়ায়েসকরনী (রাঃ) এলাকার সা,দাতীয়া জামে মসজিদ কমিটির উদ্যোগে আজ আসরের নামাজের পরে গৃহবন্দী, কর্মহীন এবং নিম্ন ও মধ্যবিত্ত আয়ের ৭০ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। বিতরনের পূর্বে করোনা ভাইরাস মহামারী দুর্যোগ থেকে মুক্তির জন্য দোয়া করা হয়।রোজাদার ব্যক্তিরা ইফতারের পর ভালোভাবে পরিবার নিয়ে খেতে পারে এজন্যই সা,দাতীয়া মসজিদ কমিটির এই মহৎ ই উদ্যোগ।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের মসজিদ উন্নয়নের রূপকার ও ধর্মভীরু জনদরদী নেতা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মনিরুল আলম সেন্টু, মসজিদটির সভাপতি, হাজী আব্দুল আজিজ, সেক্রেটারি মোঃ বাদশা মিয়া জমাদ্দার, ইমাম মাওলানা ফায়জুল্লাহ ফয়সাল, মুয়াজ্জিন হাফেজ মোঃ মোস্তফা কামাল, আরো উপস্থিত ছিলেন হাজী মাওলানা লোকমান হোসেন, এলাকার প্রবীণ শিক্ষক আব্দুল হামিদ মাস্টার, মোঃ সেলিম খলিফা সহ মসজিদ কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ এবং এলাকার গণ্যমান্য মুরুব্বীগন।

এ সময় সা,দাতিয়া মসজিদ এর সভাপতি হাজী আব্দুল আজিজ বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সর্বোচ্চ ইমাম সাহেব ও মোয়াজ্জিনসহ ১২ জন সুস্থ মুসল্লীর উপস্থিতিতে প্রতিনিয়ত জামাতের সহিত খতমে তারাবির নামাজ এই মসজিদে পড়ানো হবে তাই সকলকে অনুরোধ আপনারা যারা মসজিদে আসতে পারবেন না তারা ঘরে বসে আল্লাহর ইবাদত করুন। এ পবিত্র মাহে রমজান মাসের ফজিলত ও তাৎপর্য অনেক। তাই করোনা থেকে মুক্তির জন্য এই সিয়াম সাধনার মাসে আমরা বেশি বেশি ইবাদত করি নিশ্চয়ই আল্লাহ এই মহামারী দুর্যোগ থেকে আমাদেরকে মুক্তি দেবে। তিনি সর্বশেষে বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাব অপরিষ্কার অপরিচ্ছন্নতা জন্য বেশি ছড়ায় তাই আপনারা সকলেই পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবেন। কারণ পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!