সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

বর্তমান সময়ে গরীব, মহেনতি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর মোক্ষম সময় –বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস

 

স্টাফ রিপোর্টার : প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে বিশ্ব। একই অতঙ্ক আছে বাংলাদেশেও। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। যাতে সবাই নিজ নিজ গৃহে অবস্থান করে। আর এ অবস্থায় সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষেরা পড়েছেন বিপাকে। ঘর থেকে বের হতে না পেরে খাদ্য সংকটে ভুগছেন অনেক পরিবার। তাই তাদের খাদ্য সংকট নিরসনে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের ব্যবস্থা করেছে চাঁদপুর মতলব উত্তর উপজেলার ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ।

বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।

বৃহস্পতিবার  (১ এপ্রিল ) সকালে ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের সম্মুখে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় খেটে খাওয়া দিন মজুর, রিকসা ও ভ্যান চালক, রেষ্টুরেন্ট শ্রমিক, ফেরিওয়ালা, পরিবহন শ্রমিক, চা দোকানর্দা#৩৯;সহ অসচ্ছল শতাধীক পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, ২কেজি আলু ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে ডেটল সাবান, মাস্ক, হেক্সাসল বিতরণ করেন তিনি। বিতরণকালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস বলেন, দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে সাধারণ মানুষের

পাশে দাঁড়ানো আমাদের সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য। বর্তমান সময়ে গরীব, মহেনতি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর মোক্ষম সময়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে একজন মানুষও না খেয়ে মরবে না। আমার এলাকার সাধারণ মানুষের পাশে সর্বদাই থাকবো।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে করোনা দুর্যোগেও আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে স্বাধ্যমত কাজ করে চলছে। আর ধৈর্য, দায়িত্বশীলতা ও দেশপ্রেম নিয়ে একযোগে সবাইকে এই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করতে হবে।

তিনি সকলকে সতর্ক করে বলেন, সবাই জানেন করোনাভাইরাস একটি বৈশ্বিক দুর্যোগ। পৃথিবীর অধিকাংশ দেশই এখন এই ভাইরাসে আক্রান্ত। করোনা ভাইরাস থেকে সংক্রামক রোগের নামই হচ্ছে কোভিড-১৯। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে এই রোগটি ছড়ানোর আগ পর্যন্ত সবার কাছেই অজানা ছিল।

আর এই রোগটি থেকে মুক্তি পেতে হলে আমাদের দৈনন্দিন আচরণ ও চলাফেরাতে পরিবর্তন আনতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া কারোরই উচিত হবে না। মনে রাখতে হবে আমরা যে কেউ যে কোনো সময় এই রোগে আক্রান্ত হতে পারি।

কারণ আমরা সবাই এখন এই রোগের ঝুঁঁকিতে রয়েছি। তাই প্রয়োজন সচেতনতা ও সতর্কতা।

সভাপতির বক্তব্যে ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ বলেন, এই মুহূর্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কোনো গুজবে কান দেবেন না। গুজব ছড়ানোটা বিভ্রান্তিকর ও অপরাধও। তাই গুজবে কান দেন দেবেন না, আতঙ্কিত হবেন না। নিজে সচেতন হোন, অন্যকেও সচেতন হতে বলুন।

ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশের সভাপতিত্বে ও ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান সবুজের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারী।

এ সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আওরঙ্গজেব, আ’লীগ নেতা মানসুর আহমেদ, রমিজ উদ্দিন শিশির, কামাল হোসেন গাজী, শফিকুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আ. রব প্রধান, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি কবির হোসেন, সহ সভাপতি শাহাজালাল, এমএ হাশেম, ইউপি সচিব নাছির আহমেদ খান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গাজী নাছিম রানা’সহ সকল ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!