বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০

আমরা বেগম জিয়ার মুক্তি চাই : এড. সাখাওয়াত

 

নারায়ণগঞ্জ কথা : নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনার সংগ্রাম করতে গিয়ে সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সণ ও তিনবারের সফল প্রধাণমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ।শেখ হাসিনার নির্দেশে বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে জেলে আটকে রাখা হয়েছে। আমরা বেগম জিয়ার মুক্তি চাই।

২৭ অক্টোবর রবিবার বিকেলে জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের উদ্যোগে আয়োজিত র‌্যালী শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এড. সাখাওয়াত হোসেন খান, ভোলার বোরহানউদ্দিনের ঘটনা সরকারের সাজানো নাটক। ক্যাসিনো কান্ড আর আবরার হত্যাকান্ড ধামাচাপা দিতেই ভোলায় নিরিহ নবী প্রেমীদের উপর নির্বিচারে গুলি চালানো হলো যা সরকারের দুর্নীতির তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে মানুষের দৃষ্টি ভঙ্গি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার অপচেষ্টা মাত্র।

তবে এভারে আর বেশি দিন পাপ ধামাচাপা দিয়ে রাখতে পারবে না সরকার, জনগনের প্রবল প্রতিরোধের মুখে দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবেই আর সেদিন বেশী দূরে নয়। নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয়ে র‌্যালীটি নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।

এড. সাখাওয়াত আরো বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশ শাসন করছে ভারতের একটি পুতুল সরকার। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ভারতের কারাগারে বন্দি। ভারত যেভাবে বলছে সরকার সেভাবেই প্রশাসনকে ব্যবহার করছে, বিচার বিভাগকে পরিচালিত করছে। ১৯৭১ সালে যেমন লাহোর থেকে এদেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনা হয়েছিলো তেমনিভাবে দিল্লির কাছ থেকেও বাংলাদেশের মানুষের হারানো অধিকার ফিরিয়ে আনার লড়াই করতে হবে।

আর সে লড়াইয়ে জয়ী হতে হলে গণতন্ত্রের আপোষহীণ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পেলেই মুক্তি পাবে দেশের গণতন্ত্র, মানুষ ফিরে পাবে তাদের মৌলিক অধিকার। আর তাকে মুক্ত করতে হলে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম অব্যহত রাখতে হবে আর সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

আজকে যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সফল হোক, নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের প্রতি রইলো শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক সাগর প্রধানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন শোখন। উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এড. সরকার হুমায়ুন কবির, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহŸায়ক এড. এইচ এম আনোয়ার প্রধান, বিএনপি নেতা মহিউদ্দিন শিশির, বন্দর উপজেলা যুবদলের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনু, যুবদল নেতা মোঃ সুমন ভূঁইয়া, তরিকুল ইসলাম, মোঃ সোহেল, আল আমিন, বাদশা মিয়া, মোঃ পলাশ, জাকির হোসেন, মোঃ আকাশ, শাওন, সানাউল্লাহ, মনিরুজ্জামান মন্টু, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক রাকিব হাসান রাজ, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক ইব্রাহীম আহমেদ বাবু মহানগর তাঁতী দলের আহবায়ক মীর আলমগীর, সদস্য সচিব ইকবাল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক অপু রহমান, সুমন হওলাদার, আ: রাজ্জাক, মো: জামান খান, কামাল হোসেন, ফতুল্লা থানা মৎস্যজীবী দলের সদস্য সচিব রাসেল প্রধান, হোসিয়ারী শ্রমিকদলের সভাপতি আবদুল মতিন মাষ্টার, শহিদ হোসেন, আলাউদ্দিন বেপারী, মো: শাহাবউদ্দিন, আবে জমজম মোল্লা, মহানগর কৃষক দল নেতা মনির হোসেন খান, নুরুল ইসলাম, মো: হালিম, মো: ওয়াসিমসহ মহানগর যুবদল ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!