শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

গাড়ী আমদানি নয় রপ্তানী করবে একদিন বাংলাদেশ : ল্যাম্বোরগিনির গাড়ি নির্মাতা আকাশ

 

নারায়ণগঞ্জ কথা ডটকম : নারায়ণগঞ্জে হলো এবার ২সিটের গাড়ী, চরে যাবে বর কনে শশুর বাড়ী। ২সংখ্যার কারিগর হলো আকাশ।

তিনি নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার লামাপাড়ায় ল্যাম্বোরগিনির আদলে গাড়ি নির্মান করে সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন।

স্বাধীন নাগরিক স্বাধীন বাংলাদেশের তরুণদের কাছে আমাদের প্রত্যাশা। এনিয়ে অনলাইননিউজ পোর্টাল নিউজ নারায়ণগঞ্জে সংবাদ প্রকাশিতহবার পর থেকেব সারাদেশে ভাইরাল হয়ে পড়ে তাঁর এই গাড়ী তৈরির খবর।স্থানীয় জাতীয় দৈনিক থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিকগণমাধ্যমেও খবর প্রকাশিত হয়। ১৩ জুন প্রথমবার প্রকাশিত হয় 

আকাশের নিজহাতে নির্মিত পরিবেশবান্ধব গাড়ির খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পরে। 

এই বিষয়ে আকাশ বলেন, আমার ছোট বেলার স্বপ্ন ছিলো একটি গাড়ী বানানোর।  আজ আমার সেই স্বপ্ন পূর্ণ হয়েছে। তবে যদি সরকারের সার্বিক সহযোগিতা পাই  ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে আজকের তারুণ্য প্রজন্ম বাংলাদেশ কে বিশ্ব দরবার আরও পরিচিত করে সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত করবেন নিজের মেধা বিকাশে।

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মেধা বিকাশের দায়িত্ব এই বর্তমান প্রজন্ম কে নিতে হবে।  আমাদের আজকের প্রজন্ম আমরা এগিয়ে যাবো যদি চীন ও জাপানের মত  প্রযুক্তি আমরা আমাদের মেধা খাটিয়ে ব্যবহার করতে পারি এবং সরকারি সহযোগিতা ও ঋনের ব্যবস্থা থাকে । তবেই একদিন তাঁরাও আমাদের প্রযুক্তি কে অনুসরণ অনুকরণ করবে আর আমদানি নয় আমরাই রপ্তানি করবে বাংলাদেশ ইনশাআল্লাহ এবং আমরাই একদিন বাংলাদেশ গাড়ী রপ্তানির বাজার দখল করতে পারবো। 

তথ্য প্রযুক্তি উন্নয়নের অগ্রগতিতে বাংলাদেশ আজ অনেক দূর এগিয়ে গেছেন যার প্রশংসার দাবিদার সজীব ওয়াজেদ জয় । তাঁর প্রচেষ্টায় আজ আমরা তথ্য প্রযুক্তির যুক্তি ব্যবহার করছি। 

আকাশ আরোও জানান তাঁর তৈরী পরিবেশবান্ধব এইগাড়ীটিতে

প্রায় ৫টি ব্যাটারি লাগানো হয়েছে।

যেটি প্রায় ১০ ঘণ্টা রাস্তায় চলতে সক্ষম। আর এই ব্যাটারিপূর্ণ চার্জ হতে লাগবে ৫ ঘণ্টা ।আর রাস্তায় নামলে২জন

আরোহীকে নিয়ে ঘণ্টায় ৪৫ কিলোমিটার বেগেছুটতে পারবে গাড়িটি পুরো এই গাড়িটি তৈরি করাতেতার ব্যয় হয়েছে ৩ লাখ টাকা। তবে গাড়ির বডি কার্বনফাইবারে নিয়ে আসলে ৩ লাখ টাকাতেও বানানোওযাবে বলে জানান তিনি এবং বলেন প্রশংসা করে গাড়ী আমদানি নয় রপ্তানী করবে একদিন বাংলাদেশ ।

বিশেষ মহলসহ ও তারুণ্যের প্রিয় মুখ অয়ন ওসমান তাকে এক লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন তাঁর এই সৃজনশীল মেধার কৃতিত্ব স্বরুপ ।তবে এই গাড়িটি নির্মাণে প্রায় ৩লাখ টাকা ব্যয় হলেওতার এই অনুদান আকাশের কাজকে অনুপ্রাণিতকরবে বলে বিশ্বাস আকাশ ও তার পরিবারের। শখেরবশে তৈরী করা ল্যাম্বোরগিনি আদলের গাড়িটি নিয়েসারাদেশে এতটা মাতামাতি হবে তা হয়ত আকাশনিজেও কল্পনা করেনি।

নারায়ণগঞ্জ সহ বাংলাদেশের মানুষের একটাই শ্নোগান আর সরকারের কাছে আহবান, আমাদের দেশের এই সৃজনশীল মেধাবী বাঙালি বিদেশে নয় দেশেই যদি সরকারি পূর্ণ সহযোগিতা পায় তবেই আজকের এই তারুণ্যের বাংলাদেশ গড়ায় ক্ষেত্রে তাঁরাই হবে আলোকবর্তিকা।  চীনা ও ভারতীয় প্রযুক্তি আজ সাফল্যের স্বর্ণ শিখরে উর্ত্তিন হয়েছে বিশ্বের বুকে তারা অদ্বিতীয়। তাঁর থেকে আজকের বাংলাদেশ ও পিছিয়ে নেই, প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই আমাদের দেশের এই সৃজনশীল পদ্ধতি লেখা পড়া চলছে আর এই সৃজনশীল মেধাবী আকাশ যদি সরকারি সুযোগ পায় তাঁর থেকে আমরা অনেক কিছু আশা করতে পারবো। 

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares
error: Alert: Content is protected !!