আফসানা ইলেকট্রনিক্স নামীয় টিভি ফ্রিজের দোকানে সন্ত্রাসী হামলা

 

ফতুল্লা প্রতিনিধি :  এনায়েত নগর শাহী মসজিদ সংলগ্নে আফসানা ইলেকট্রনিক্স নামীয় টিভি ফ্রিজের দোকানে রাকিব ও রিয়াজ সহ ৭/৮ জন সন্ত্রাসী হামলা চালায়।

বুধবার (১৫ মে) অনুমান সন্ধ্যা ৭টায় সন্ত্রাসীরা আফসানা ইলেকট্রনিক্স টিভি ফ্রিজের দোকানে ঢুকে হামলা পরিচালক সবুজ ও দোকানের ম্যানেজার মোঃ ইয়ামিন ইসলাম উপর হামলা করে জখম করেন।

ফতুল্লা মডেল থানায় সুফিয়া বেগম বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করে উল্লেখ করে বলেন আমার ছেলে সবুজ হোসেন আফসানা ইলেকট্রনিক্স টিভি ফ্রিজ দোকান পরিচালনা করে আসছেন। বিবাদী ১। রাকিব (২৩) পিতা আলী হোসেন, ২। রিয়াজ (২২) পিতা বিল্লাল উভয় সাং এনায়েতনগর ফতুল্লা জেলা নারায়ণগঞ্জ সহ আরো আজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন আমার ছেলে সবুজ হোসেন ১নং বিবাদীর নিকট থেকে ৩০ হাজার টাকা হাওলাদ গ্রহণ করে। ১নং বিবাদীর সহিত কথাছিল আমার ছেলের বরাবরে উক্ত টাকা এক সপ্তাহে পরিশোধ করিয়া দিবে।

১নং বিবাদীর দেয়া সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও উক্ত টাকা না করিয়া আজকাল করিয়া কালক্ষেপন করত: ঘুরাইতে থাকে। আমার ছেলে ১নং বিবাদীর কাছে উক্ত টাকা চাইলে তখন সে ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে এবং একপর্যায় ১ও২ নং বিবাদী সহ অজ্ঞাতনামা বিবাদীরা দোকানে অনধিকার প্রবেশ করিয়া সবুজ ও ম্যানেজার ইয়ামিন কে জখম করে দোকানে রক্ষিত একটি এলইডি টিভি মূল্য অনুমান ২০ হাজার টাকা ভেঙ্গে ফেলে ও ম্যানেজার এর চিৎকার শুনিয়া আমি আগাইয়া আসলে আমার উপর ইট নিক্ষেপ করে, তখন আমার মাথা নীলাফুলা জখম হয়। উল্লেখ যে, ১ ও ২নং বিবাদী সহ অজ্ঞাতনামা বিবাদীরা আমার ছেলে সহ আমাকে রাস্তা ঘাটে যেখানে কোথাও পাইলে মারপিট করত : খুন জখম করিবে বলিয়া হুমকি দিয়া চলিয়া যায়।
প্রকাশ থাকে ১নং বিবাদী মাদক সেবন কারী ও মাদক ব্যবসায়ী।  তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

এ  বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় এস আই রাসেল নারায়ণগঞ্জ কথাকে জানান, আমরা এটা প্রাইমারি তদন্ত করেছি । সেখানে স্থানীয় লোকজন ও বাদী ছিল, তারা এটাকামা সময় নিয়া এটা সমাধান করে দিবে আর এটা নিজেরা নিজেরাই।  যারা গেঞ্জাম করেছে চাচা ভাতিজা ব্লাড রিলেশনস, চাচা আর চাচাতো ভাইয়ের ছেলে এইরকম সম্পর্ক এটা তাঁদের পারিবারিক বেপার।

তিনি আরো জানান, তাঁরা স্থানীয় ভাবে সময় নিছে আর বাদী এই বিষয়ে সময় নিছে। এটা বাদীর সম্মতিতে স্থানীয় ভাবে যদি আপোষ না হয়, যদি উপযুক্ত বিচার তারা না পায় দেন আমরা ব্যবস্থা নিবো এবং সাক্ষী আমরা প্রসেস করে রাখছি তদন্ত স্বার্থে।

 

নারায়ণগঞ্জ কথা এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Shares