কুতুবপুরে যুবলীগ নেতা কাজী মামুন এর উদ্যোগে খিচূড়ী বিতরণ

নারায়ণগঞ্জ কথাঃ : ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দিনের স্মরণে কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা কাজী মামুন এর উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল
অনুষ্ঠানে কাঙালী ভোজের আয়োজনে খিচুড়ি বিতরণ করলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক মুন্সি।

শনিবার (২১ আগস্ট) বাদ জোহর আদর্শ নগর এলাকায় শোক দিবসের আয়োজনে কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক আব্দুল খালেক মুন্সির সভাপতিত্বেে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী বলেন, আগস্ট মাস শোকের মাস এই মাসেই আমরা হারিয়েছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের কে যা ইতিহাসের একটি কলঙ্কময় দিন। বঙ্গবন্ধুর স্মরণে যারা আজকে এই মিলাদ মাহফিল ও তাবারক আয়োজন করেছেন তাদেরকে আমার পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই। আর এই আগস্ট মাসেই আজকের তারিখে জাতির জনকের কন্যা বিশ্ব মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বোমা হামলা করেছিল আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে সেদিন তিনি বেঁচে যান। আপনারা সকলে দেশনেত্রীর জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ যেন তাকে ও তার পরিবারকে সুস্থ রাখে।

উক্ত আয়োজনে সভাপতির বক্তব্যে আব্দুল খালেক মুন্সি বলেন,১৫ আগস্ট ইতিহাসের একটি কালো অধ্যায়। সেই রাতে খন্দকার মোশতাকের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সপরিবারে নির্বিচারে হত্যা করা হয়। আমরা সকলেই তাদের বিদ্রোহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

এ সময় তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে একটি সুন্দর সুস্থ সমাজ গড়তে হলে মাদক সন্ত্রাস চাঁদাবাজি রুখতে হবে তা না হলে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব হবে না। আর আমাদের দেশে এখনও খন্দকার মোস্তাকের প্রেতাত্মারা ঘোরাফেরা করছে তারা দলে থেকে দলের লোকদের সাথে বেঈমানি করছে সেই সকল হাইব্রিড নেতাদের কে চিহ্নিত করতে হবে। তা না হলে বঙ্গবন্ধুর করা আওয়ামী লীগ ধ্বংসের পথে চলে যাবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, কুতুবপুর ইউনিয়ন ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সহ-সভাপতি আশরাফুল ইসলাম জাকির, কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা ও মালেক সংসদের প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল মালেক মুন্সি, ফতুল্লা ইউনিয়ন ১,২ও ৩নং যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মেহেদি হাসান শাহীন, ফতুল্লা ইউনিয়ন যুবলীগের ৪ নং ওয়ার্ড সভাপতি নূর মোহাম্মদ গাজী (সাগর), বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মাসুদ রানা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোঃ রুস্তম আলী শেখ, যুবলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন, যুবলীগ নেতা আব্দুর রহমান যুবলীগ নেতা নবী হাওলাদার, সহ অন্যান্য নেতাকর্মীবৃন্দ।