অবিলম্বে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে ইশা ছাত্র আন্দোলনের মানববন্ধন

নারায়ণগঞ্জ কথা : ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ফতুল্লা থানা শাখার উদ্যোগে সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অবিলম্বে খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ফতুল্লা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ আল আমিন এর সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক মুহাম্মাদ সোহাগ হোসাইন এর সঞ্চালনায়।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বিকেল ৫ ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুরে পাগলা বাজার মসজিদের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ফতুল্লা থানা শাখার সহ-সভাপতি মুহা.জাহাঙ্গীর কবির।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন,দেড় বছর যাবত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার দেশকে একটি মেধাশূন্য জাতিতে পরিণত করার পায়তারা করছে। রাষ্ট্রের সকল কার্যক্রম চালু রেখে শুধুমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অবরোধ জাতির জন্য অশনিসংকেত। দীর্ঘসময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা অনলাইন গেমস, কিশোর গ্যাং, মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িয়ে পরছে। বাড়ছে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা। নন এমপিও ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকারা চাকরি হাড়িয়ে অর্থের অভাবে অসহায় জীবন-যাপন করছে।জরিপে উঠে এসেছে গত বছরের ১৭মার্চ২০ থেকে আজকে পর্যন্ত ৬০লক্ষ শিক্ষার্থী পড়াশুনা বন্ধ করে দিয়েছে।শিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে এ পর্যন্ত
১৯ দফায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তারা শিক্ষার্থীদের কে রীতিমতো বোকা বানাচ্ছে।তাই শিক্ষার্থীদের সেন্টিমেন্ট বোঝার চেষ্টা করুন অনতিবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিন।

সভাপতির বক্তব্যে মুহাম্মাদ আল আমিন বলেন,দেশের প্রায় ৪ কোটি ছাত্র-ছাত্রী নিয়মতান্ত্রিক লেখাপড়া থেকে শুধু বঞ্চিত হচ্ছে তাই নয়, অনেকের শিক্ষাজীবনই শেষ হয়ে গেছে। অনেকে নানারকম অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে। মাদকাসক্ত হয়েছে অনেক ছাত্র-ছাত্রী। অনলাইনে পড়াশুনার অজুহাতে ছাত্র-ছাত্রীদের একটি বিপুল অংশ অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন গেমসে আসক্ত হয়ে গেছে। মোবাইল আসক্তি তরুণ ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সীমা ছাড়িয়ে গেছে। এসব বিপর্যয়তো শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সংক্রান্ত। এর বাইরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ফলে আর্থিক বিপর্যয়েও লাখ লাখ পরিবার পথে বসেছে। তাই শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত পূর্বক অবিলম্বে সারা দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে।

মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন,ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ফতুল্লা থানা শাখার সভাপতি মুহা.শফিকুল ইসলাম,ইসলামী যুব আন্দোলন ফতুল্লা থানা শাখার সভাপতি মুহা.মাসুদুর রহমান,ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন ফতুল্লা থানা শাখার সভাপতি মুহা.জসিম,ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ফতুল্লা থানা শাখার সহ-সভাপতি মুহা.জাহিদ হাসান,সাংগঠনিক সম্পাদক মুহা.আতিকুল ইসলাম,দাওয়া ও প্রশিক্ষন সম্পাদক মুহা.সাইদুর রহমান,প্রকাশনা ও দফতর সম্পাদক মুহা.আল-আমিন,অর্থ ও কল্যান সম্পাদক মুহা.ওমর ফারুক,কওমী মাদ্রাসা সম্পাদক মুহাম্মাদ সিয়াম হোসাইন,আলীয়া মাদ্রাসা সম্পাদক মুহাম্মদ আবু হানিফ,কলেজ সম্পাদক মুহা ফজলে রাব্বি,স্কুল সম্পাদক মুহা.ফাহিম হোসাইন,সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক মুহাম্মাদ মাসুম, সদস্য-১ রিয়াদ হোসাইন,সদস্য-২ মুহাম্মাদ রিয়াজুল ইসলাম,মুহা.শফিকুল ইসলাম রাহাততথ্য গবেষণা ও প্রচার সম্পাদক।ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ফতুল্লা থানা

সহ আরো অনেকে।


Shares