বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে নারায়ণগঞ্জ মহানগর নেতৃবৃন্দের ভার্চুয়াল আলোচনা সভা

নারায়ণগঞ্জ কথা : শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪০ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা সভা।

শুক্রবার (৪ জুন) বিকেল তিন ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ কালিবাজার চারারগোপ ফ্রেন্ডস মার্কেটের চতুর্থ তলায় এ আয়োজন এর নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী সদস্য এডভোকেট আবুল কালাম এর সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল ভিডিওর মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নারায়ণগঞ্জে বিএনপির রাজনীতি করতে এসে অনেক জেল জুলুম অত্যাচার অসংখ্য গুমের ঘটনা ঘটেছে। তারপরও তারা দলকে ভালোবেসে দলের জন্য বিভিন্ন সময় কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী সকল কর্মসূচি ব্যাপকভাবে পালন করেছেন। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ভালোবেসে তারা এই সকল অন্যায় অত্যাচার সহ্য করে বিএনপির রাজনীতি করে যাচ্ছে। দুঃখের সাথে বলতে হয় আজ এই সরকার এদেশ থেকে গণতন্ত্র উঠিয়ে দিয়েছে মানুষের বাক স্বাধীনতাকে রুখে দিয়েছে। আমাদের বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ওনাকে চার বছর জেলে রেখছে এখনো উনি খুব অসুস্থ অবস্থায় বাসায় পড়ে আছেন এবং বিএনপির ভবিষ্যৎ কর্ণধার শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের তারেক রহমানের নামেও তারা মিথ্যা মামলার সাজা দিয়েছে উনি দেশে আসতে পারছেন না। তাই সকলের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে আপনারা রাজপথে থাকবেন আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারের পতন ঘটাতে হবে।

উক্ত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি জাকির হোসেন, ফখরুল ইসলাম মজনু, রিয়াজুল ইসলাম আজাদ, রফিক আহম্মেদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী ইসমাইল, মনিরুল ইসলাম সজল, সাংগঠনিক সম্পাদক ওমহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবুল কাউছার আশা, দপ্তর সম্পাদক ইসমাইল মাষ্টার, যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক বরকত উল্লাহ বুলু, যুব বিষয়ক সম্পাদক মানোয়ার হোসেন শোখন, সহ-প্রচার সম্পাদক মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শিপলু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ফারুক চৌধুরী, সহ-সভাপতি আরাফাত চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হোসেন লিয়ন, সাংগঠনিক সম্পাদক অহিদুল ইসলাম ছক্কু, প্রচার সম্পাদক দুলাল হোসেন, মহানগর বিএনপি নেতা আবুল কাশেম, সোলেইমান মিয়া, মনির হোসেন, ফয়েজ উল্লাহ সজল, শওকত আলী লিটন, ফেরদৌসুর রহমান, হাফেজ সিব্বির আহম্মেদ, মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি নাজমুল হক রানা, মনোয়ার হোসেন মন্টি, আলী ইমরান শামীম, শহিদুজ্জামান শহিদ, মহানগর ছাত্র দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাফিউদ্দিন রিয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক পাপন আহম্মেদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা জুয়েল প্রধান, পাপ্পু আহমেদ, মহানগর শ্রমিক দলের সদস্য সচিব আলী আজগর, যুগ্ম-আহবায়ক মনির মল্লিক, ফজলুর রহমান, খালেদ মাহমুদ, আনিছুর রহমান জুয়েল, শহীদ হোসেন, বাদশা মিয়া, বাচ্চু দেওয়ান, সুমন বিল্লাল বেপারী, হারুনুর রশিদ কাজল, ওয়াসিম আকরাম সহ মহানগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Shares